অনেকেই বলেন, “সৃষ্টিকর্তার কাছে চাওয়ার মতো চাইলে সবই পাওয়া যায়।”

কিন্তু এই “চাওয়ার মতো চাওয়া” বলতে কি বোঝেন আপনারা? সব কাজকর্ম ফেলে সারাদিন-সারারাত উনার কাছে প্রার্থনা করা?

নট নেসেসারিলি! “চাওয়া মতো চাওয়া” বলতে এখানে বোঝানো হয় কর্ম কে। আসলে আপনি যখন একটা জিনিস মনেপ্রাণে চাইবেন, তখন আপনার মন (পড়ুন ব্রেইন) আপনাকে অটোম্যাটিক্যালি আপনাকে এমন সব কাজ করিয়ে নেবে যেন আপনি ওই জিনিসটা পেয়ে যান। আপনি যদি প্রোপার ওয়েতে পরিশ্রম করতে থাকেন, তাহলে একটা সময় পরে কোন একটা বিষয়ে আপনার এক্সপার্টাইজ গ্রো করবেই। সেই এক্সপার্টাইজ গ্রো করানোটা যদি হয় নির্দিষ্ট একটি কাজের উদ্দেশ্যে (উদাহরণস্বরূপ এক্সাম টাইপ উদ্দেশ্যের কথা ধরতে পারেন…সেটা নিয়োগ পরীক্ষা হতে পারে বা ভর্তি পরীক্ষা হতে পারে, কোন সার্টিফিকেট এক্সাম হতে পারে ইত্যাদি) তাহলে একটা সময় পরে আপনার সেই উদ্দেশ্যে সফল হবেই। এক্সপার্টাইজ অর্জনের পরেও কিছুদিন যদি সেই উদ্দেশ্যে সফল না হয় তাহলে সেটাকে ভাগ্যের খেলা (আমি অবশ্য দুর্ভাগ্য বলি) বলতে পারেন। আমার কাছে ৯৫% হচ্ছে পরিশ্রমের ফল, বাকী ৫% দুর্ভাগ্য। তবে একটা জিনিস মাথায় রাখবেন, আপনি যদি কোন বিষয়ে এক্সপার্টাইজ অর্জন করেই ফ্যালেন…তাহলে এই দুর্ভাগ্য জিনিসটা সবসময় বাধা হয়ে আসবেনা। একসময়ে আপনার উদ্দেশ্য পূরণ হবেই হবে।

তবে অনেকেই এই “এক্সপার্টাইজ” জিনিসটাকে আবার ভুলভাবে ব্যাখ্যা করেন। আপনি হয়তো মনে করছেন আপনি একটা বিষয়ে এক্সপার্ট, কিন্তু অভিজ্ঞতাসম্পন্ন একজন সেটা না ও মনে করতে পারেন। একটা স্কেল ধরে নিতে পারেন এক্ষেত্রে…আপনি যদি ১০ টা চাকুরীর পরীক্ষা দিয়ে ৮ টা তে কোয়ালিফাই করেন, তাহলে ধরে নেওয়া যায় আপনি এক্সপার্ট। এটা যদি না হয়…তাহলে আপনার ওই পরিশ্রমের কোথাও না কোথাও সমস্যা ছিলো। সে সমস্যাটা হতে পারে মেন্টরশিপের মাঝে, হতে পারে স্ট্র‍্যাটেজির মাঝে, আবার ডেডিকেশনেও হতে পারে।

তবে যা ই করেন না কেন, একটা বিষয় কিন্তু সবসময় মাথায় রাখতে হবে। দুনিয়াতে পারফেকশন বলে কিছু নেই। আপনি যদি সৃষ্টিকর্তার কাছে একটা বিএমডব্লিও চান, তাহলে পাবেন একটা টয়োটা; যদি টয়োটা চান, তাহলে পাবেন একটা মোটরসাইকেল; আর যদি মোটরসাইকেল চান, তাহলে পাবেন একটা হিরো বাইসাইকেল…হা হা হা।

সুতরাং টার্গেট সবসময় বড় রাখবেন। চাইবেন ল্যাম্বরগিনি, যেন অন্তত বিএমডব্লিও পান একটা। তবে সেটা যেন চাওয়ার মতো চাওয়া হয়। সাথে এটাও ভুলে যাবেন না…বিএমডব্লিউ পাওয়ার পরিশ্রম আর ল্যাম্বরগিনি পাওয়ার পরিশ্রম কিন্তু এক না!

 

ফেরদৌস কবির

ডেপুটি ডিরেক্টর, বাংলাদেশ ব্যাংক

এমবিএ, আইবিএ (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়)

এমবিএ (আইবিএ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়)