সেটা হলো, ‘Start in a different way or attractively’. মনে রাখবেন, ‘First impression last long’. বিষয়টা উদাহরণ দিয়ে বললে সুবিধা হবে। প্রথমেই বলে রাখি আমার নিজের লেখার মান আহামরি উন্নত নয়। গ্রামার, স্পেলিং এগুলো ঠিক থাকে। তবে লেখার মান আমার কাছে মনে হয় এভারেজ। যা দিয়ে চান্স পাওয়া সম্ভব নয়। এজন্যই আমি এভো্ব এভারেজ হওয়ার জন্য উপরোক্ত টেকনিক ব্যবহার করি।

আমার বাংলাদেশ ব্যাংক সহকারী পরিচালক পরীক্ষায় ’Mobile Banking’ নিয়ে একটি প্যারাগ্রাফ অথবা রচনা এসেছিল। মোবাইল ব্যাংকিং নিয়ে আমার জানাশোনা আপনাদের মতই এবং আর দশজনের মতই আমি, মোবাইল ব্যাংকিং কি, কিভাবে হয়, সুবিধা ও অসুবিধা লিখেছিলাম পরীক্ষাতে। তবে শুরুটা করেছিলাম ভিন্নভাবে। আমার শুরুটা ছিল এরকম, ‘One day I didn’t have a change to pay the rickshaw puller and I paid the money through mobile banking. This is how mobile banking facilitates our daily life.’ এইটার পরে আমি গতানুগতিকভাবেই বাকীটা লিখে আসি। আমার ধারনা যে শিক্ষক আমার খাতা দেখেছে সেও জানে আমি চাপা মারছি কিন্তু আমার মনে হয় তিনি এই লেখার কারণে ১ মার্ক হলেও আমাকে বেশি দিয়েছেন। এবং ১ মার্কই যথেষ্ট এভোব এভারেজ হওয়ার জন্য বা চান্স পাওয়ার জন্য।

আইবিএ এমবিএ পরীক্ষায় আমাদের প্যারাগ্রাফ এসেছিলো, ‘Pitha’ আমি শুরু করেছিলাম এইভাবে, ‘In this exam hall, I become nostalgic just seeing the word pitha which reminds me the childhood and our very village traditions.’ যাইহোক আমি আইবিএতে চান্স পেয়েছিলাম।

শুরুটা ‘differently or attractively’ করতে হলে আহামরি কিছু করতে হবেনা। একটু মজা, ইমোশন বা Different but relevant ভাবে উপস্থাপন করলেই হয়। এটা আমার একান্ত মতামত। মনে করেন, ‘Traffic Jam’ নিয়ে কিছু লিখতে বললে সবাইতো একই বিষয় লিখবে। আপনি যদি এমন করে লিখেন, (নিজের এমন কোন আত্মীয় যে মারা গিয়েছে তাকে নিয়ে) আমার অমুক বা তমুক হার্ট এটাক করলো, তাকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে ট্রাফিক জ্যামে ৩ ঘন্টা আটকে ছিলেন। হাসপাতালে যাওয়ার পর ডাক্তার জানালেন, আমরা রোগী নিয়ে আসতে দেরি করে ফেলেছি। এভাবেই ট্রাফিক জ্যামের কারণে অনেক প্রাণ অকালেই ঝরে যাচ্ছে। এরপর লেখুন গতানুগতিক লেখা। যে আপনার খাতা দেখবে, এই শুরুটা দেখেই আপনার প্রতি Soft হয়ে যাবে। ফলাফল মার্ক বেশি।

তবে একটা বিষয় অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে। তা হলো ভিন্নভাবে শুরু করতে যেয়ে একদম অপ্রাসঙ্গিক জিনিস আবার নিয়ে আসবেন না। নিয়মিত লেখার চেষ্টা করুন। ইংরেজি রিডিং হ্যাবিট তৈরি করুন। আপনি যে স্ট্যান্ডার্ড এর বই বা পত্রিকা পড়বেন, আপনার লেখার ধাচটাও ওইরকম হবে।

শুভকামনায়

হাসানুল পান্না শাকিল

উপপরিচালক, বাংলাদেশ ব্যাংক